• E-paper
  • English Version
  • মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ১২:২০ অপরাহ্ন



গৃহবধূ উদ্ধার অপহরণের ১৭ দিন পর 

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৮
  • ৩৫ বার পঠিত
গৃহবধূ উদ্ধার অপহরণের ১৭ দিন পর 

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায় অপহরণের ১৭ দিন পর উদ্ধার করা হয়েছে মোছা. কাসিরন বেগম (৩৬)নামের এক গৃহবধূকে। গত বুধবার অপহরণকারীদের কাছ থেকে পালিয়ে আসার পর শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টায় ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। অপহৃত ওই গৃহবধূ উপজেলার খয়েরবাড়ি ইউনিয়নের কিসমত লালপুর গ্রামের মামুনুর রশিদের স্ত্রী।
থানায় দায়েরকৃত এজাহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পৌর এলাকার উত্তর সুজাপুর গ্রামের বাসিন্দা তাইফুল ইসলাম সাইফুল (৪০), তার ভাই মো. রাশেদ (৫০) ও বোন মোছা. আম্বিয়া (২৯) এই অপহরণের ঘটনায় যুক্ত ছিল। তারা গত ২৩ অক্টোবর সকাল ১০টায় চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে দেড় লাখ টাকাসহ লক্ষ্মীপুর নামক স্থানে ডেকে নিয়ে যায় কাসরিন বেগমকে।
পরে কাসিরন বেগম সেখানে গেলে, তাকে জোরপূর্বক অজ্ঞাত স্থানে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এরপর পরদিন ২৪ অক্টোবর তাইফুল ইসলাম সাইফুল, কাসিরনের দুলাভাই কিসমত লালপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. কালামকে মোবাইল ফোন করে ২৫ হাজার টাকা মুক্তিপণ হিসেবে দাবি করে।এ সময় মুক্তিপণের দাবিকৃত টাকা পেলে তারা কাসিরনকে বাড়িতে পাঠিয়ে দিবে বলে জানায়।
পরে স্ত্রীর খোঁজে স্বামী মামুনুর রশিদ, তাইফুল ইসলামের বাড়িতে গেলে সেখান থেকে তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে বিতাড়িত করা হয়। দীর্ঘ ১০ দিন ধরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও স্ত্রীর সন্ধান না পাওয়ায় গত ২ নভেম্বর মামুনুর রশিদ বাদী হয়ে থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর ১।
মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই ) রবিউল আলম বলেন, ‘কাসিরন বেগম অপহরণকারীদের হাত থেকে পালিয়ে গত বুধবার স্বামীর বাড়িতে চলে আসে। বিষয়টি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসিম হাবিব জানার পর কাসিরনকে ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।’
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী কাসিরন বেগম জানান, অপহরণকারীরা তাকে অপহরণ করে নাটোর ও ঢাকার অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে আটকে রেখেছিল।
ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসিম হাবিব বলেন, ‘অপহরণের শিকার গৃহবধূ কাসিরন বেগমকে উদ্ধারের পর আজ শনিবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।’

Facebook Comments



নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..