• E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন



শরণখোলায় ইউনিয়ন আ’ লীগ সভাপতিকে পিটিয়ে আহত করেছে নিজ দলের প্রতিপক্ষরা

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮
  • ১০১ বার পঠিত
শরণখোলায় ইউনিয়ন আ' লীগ সভাপতিকে পিটিয়ে আহত করেছে নিজ দলের প্রতিপক্ষরা
শরণখোলায় ইউনিয়ন আ' লীগ সভাপতিকে পিটিয়ে আহত করেছে নিজ দলের প্রতিপক্ষরা

বাগেরহাটের শরণখোলায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহজাহান বাদল জমাদ্দারকে (৫৫) পিটিয়ে পা ভেঙে দিয়েছে নিজ দলের প্রতিপক্ষরা। তাকে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রাতেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার চালরায়েন্দা-তাফালবাড়ি বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটেছে।

দলীয় নেতাকর্মী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আগামী ২৩ ডিসেম্বর নৌকার মার্কার জনসভাকে সফল করতে শুক্রবার বিকেলে সাউথখালী ইউনিয়নের তাফালবাড়ি বাজারের মুক্তিযোদ্ধা কার্যালয়ে প্রস্তুতি সভা করছিলেন দলের নেতাকর্মীরা। ওই সভার সভাপতিত্ব করা নিয়ে নিজেদের মধ্যে অনৈক্যের সৃষ্টি হয়। এ সময় যুবলীগের একটি গ্রুপ সভা থেকে বেরিয়ে যায়। পরে ওই নেতাকর্মীরা চালরায়েন্দা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এলে চায়ের দোকানে বসে থাকা রায়েন্দা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি সদস্য শাহজাহান বাদল জমাদ্দারের ওপর হামলা চালায়।

হামলাকারীরা ধারালো অস্ত্র, লোহার রড ও লাঠিসোটা নিয়ে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে। এতে তার ডান পা ভেঙে যায় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়। এক পর্যায়ে চায়ের দোকানের কেটলির গরম পানি তার গায়ে ঢেলে দেয় তারা।

এ সময় চা দোকানি শহিদুল হাওলাদার (৫০) ঠেকাতে গেলে তিনিও আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আওয়ামী লীগ নেতা বাদল জমাদ্দারকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. দিবাকর বসাক বলেন, তার ডান পা ভেঙে যাওয়ায় প্রাথমিকভাবে ব্যান্ডেজ করে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত বাদল জমাদ্দারের বড় ভাই মো. বেল্লাল হোসেন জমাদ্দার বলেন, ‘দলীয় মনোনয়ন চুড়ান্ত হওয়ার আগে আমার ভাই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগের পক্ষে থাকায় তার ওপর এ হামলা চালানো হয়েছে।’

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির বাবুল বলেন, নৌকার বিজয় নস্যাৎ করতে এ হামলা চালানো হয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করছি।’

শরণখোলা থানার ওসি দিলীপ কুমার সরকার বলেন, ‘হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আওয়ামী লীগ নেতা বাদল জমাদ্দারকে উদ্ধার করে হাপাতালে নিয়ে আসি। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Facebook Comments



নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..